Home » আশাশুনি সরকারি জমি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে সরকারবিরোধী তৎপরতার অভিযোগ

আশাশুনি সরকারি জমি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে সরকারবিরোধী তৎপরতার অভিযোগ

কর্তৃক CsCSJekovzvW
সাতক্ষীরা লাইভ :সাতক্ষীরার আশাশুনিতে সরকারি জমি লিজ পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দরিদ্র মানুষদের সরকারবিরোধী তৎপরতায় ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। সরকারবিরোধী আন্দোলনে মাঠে থাকার প্রতিশ্রতির বিনিময়ে ইতিমধ্যে কোপাত মোড়ল নামের এক বিএনপি কর্মী নেতৃত্ব দিয়ে ২৫ জনকে একসনা লিজ (ডিসিআর) পাইয়ে দিয়েছেন। এ বিষয়ে আশাশুনি সহকারী কমিশনার (রাজস্ব) বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে গ্রামের সওকত গাজী নামের এক ব্যক্তি।
জানা গেছে, প্রতাপনগর ইউনিয়নের গোকুলনগর গ্রামের মৃত করিম মোড়লের ছেলে কোপাত মোড়লের নেতৃত্বে ২৫ জনের একটি দল সরকারবিরোধী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। তার অন্যতম সহযোগি হিসেবে রয়েছে একই গ্রামের নবাব্দী মোড়লের ছেলে মোঃ রজব আলী। সম্প্রতি এই দুজন গ্রামের বিভিন্ন পরিবারকে সরকারি খাস জমি একসনা লিজ (ডিসিআর) পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলনে যুক্ত করছে। ইতিমধ্যে তারা গ্রামে ভিতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।
সোমবার (৬ অক্টোবর) আশাশুনি সহকারী কমিশনার (রাজস্ব) বরাবর এক লিখিত অভিযোগে এসব তথ্য উল্লেখ করেছেন একই গ্রামের সওকত হোসেন নামের এক ব্যক্তি। অভিযোগের অনুলিপি জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকেও দিয়েছেন তিনি।
সরকারবিরোধী তৎপরতায় অংশ নেয়ার শর্তে যাদের একসনা লিজ পাইয়ে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে তারা হলেন, কোপাত আলী মোড়ল, মোঃ রজব আলী, কামরুল ইসলাম, শাহজাহান আলী, কবির মোড়ল, ফারুক হোসেন, মইনুর ইসলাম, মজিবর রহমান, মিজানুর রহমান, তাসলিমা খাতুন, সবুজ হোসেন, গাউছুল আজম, আজিজুল ইসলাম নামের দুজন, রেজাইল ইসলাম, মফিজুল ইসলাম, আঃ অদুত, আঃ হাকিম মোড়ল, মোঃ ইসমাইল, মোঃ আলমগীর, আব্দুল জলিল, আব্দুর রহমান, ফজর আলী গাজী, ইমদাদুল হক ও মোমেনা খাতুন।
এ বিষয়ে আশাশুনি আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বি এম মোস্তাকিম বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি এবং অভিযোগের বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সুপারিশ করেছি। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত কোপাত মোড়লের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আশাশুনির কমিশনার (ভূমি) আমাদের লিজ দেয়নি। আমরা এডিসির কাছে আপিল করলে তিনি আমাদের ২৫ জনকে লিজ দেয়ার আদেশ দিয়েছিলেন। এখানে অন্য কোনো কিছু নেই।
এ বিষয়ে আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রনি আলম নূর বলেন, এধরনের কোন কিছুই আমার জানা নেই, অভিযোগের বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিশ্বজিত্‌ অধিকারী বলেন, এবিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পায়নি, তবে সরকারবিরোধী কার্যক্রমে যদি কারো সম্পৃক্ততা থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রিলেটেড পোস্ট

মতামত দিন


The reCAPTCHA verification period has expired. Please reload the page.